You are here: Home » সফল উদ্যোক্তা » বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তরুণীর সাফল্য

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তরুণীর সাফল্য 

অনলাইন ডেস্ক | আপডেট: ১২:০৩, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৬

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কানাডীয় তরুণী তানজিনা নওশিন ‘এডুকেশন ইয়ুথ ভিডিও চ্যালেঞ্জ’ প্রতিযোগিতায় ‘গ্র্যান্ড প্রাইজ’ জিতেছেন। তাঁর সঙ্গে যৌথভাবে বিজয়ী হয়েছেন আরেক কানাডীয় রুথ অরুনাচলম। বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার (বাসস) খবরে এই তথ্য জানানো হয়।

প্রতিযোগিতার আয়োজক যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ইন্টারন্যাশনাল কমিশন অন ফাইন্যান্সিং গ্লোবাল এডুকেশন অপরচুনিটি। এটি এডুকেশন কমিশন হিসেবে পরিচিত।

প্রতিযোগিতায় ৬০টিরও বেশি দেশের প্রায় ৪০০ জন প্রতিযোগী অংশ নেন। তানজিনা নওশিনের সঙ্গে যৌথভাবে গ্র্যান্ড প্রাইজ বিজয়ী হয়েছেন রুথ অরুনাচলম।

প্রতিযোগিতায় নেপালি তরুণী প্রীতি শাক্য (২৩) দ্বিতীয় হয়েছেন। ব্রাজিলের গুস্তাভো সান্তানা (৩০) হয়েছেন তৃতীয়।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭১তম অধিবেশনের ফাঁকে এই পুরস্কার বিতরণের কথা রয়েছে। বিশ্বনেতাদের উপস্থিতিতে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন আনুষ্ঠানিকভাবে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করবেন।

গ্লোবাল এডুকেশন-বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ দূত ও এডুকেশন কমিশনের চেয়ারম্যান গর্ডন ব্রাউন বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন।

কানাডায় জন্ম নেওয়া তানজিনা নওশিন (১৯) এখন ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ছেন। তাঁর বাবা সিলেট থেকে কানাডায় অভিবাসী হয়ে টরন্টোতে ব্যবসা করছেন।

তানজিনার বাবা নুরুল মোস্তফা রায়হান বলেন, তাঁর মেয়ের জন্ম কানাডায়। সেখানেই তাঁর বেড়ে ওঠা। কিন্তু উত্তরাধিকার সূত্রে তাঁর মেয়ে বাংলাদেশের সংস্কৃতি পেয়েছেন।

নুরুল মোস্তফার বিশ্বাস, তাঁর মেয়ের সাফল্য বাংলাদেশ ও কানাডার জন্য সুনাম বয়ে আনবে।

আয়োজকদের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, তরুণ প্রজন্ম ভবিষ্যৎ শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ে কী ভাবছে, সে বিষয়ে তাঁদের মতামতভিত্তিক ৩০ সেকেন্ডের ভিডিওর মাধ্যমে এই প্রতিযোগিতা হয়।

প্রতিযোগিতায় ১৩ থেকে ৩০ বছর বয়সী মেয়েরা অংশ নেন। প্রতিযোগীদের দুটি প্রশ্ন করা হয়। ৩০ সেকেন্ডের মধ্যে প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়েছে।

Add a Comment